আমাদের মাঝে অনেকেরই সাইটে পোস্ট লেখার ইচ্ছা থাকলেও কেবলমাত্র লেখার সময় টুল গুলির ব্যবহার না জানার কারণে লিখতে পারেন না। আবার অনেক সময় লিখতে পারলেও লেখা দেখতে যথেষ্ট সুন্দর হয়না শুধু টুল গুলির ব্যবহার না জানায়। তাই খুব ছোট্ট করে আপনাদের সাথে এখন আলোচনা করবো বেসিক কিছু টুল তার তাদের প্রাথমিক কাজ নিয়ে। কেউ যদি টেকবার্কসে পোস্ট লেখার নিয়ম না জেনে থাকেন তাহলে এখানে ক্লিক করে জেনে নিতে পারেন। তাহলে আর দেরি কেন? চলুন জেনে নিই কিছু টুলস এর কাজ আর মেতে উঠি টেকনোলোজি নিয়ে, টেকনায়নে…
23

পোস্ট লেখার সময় উপরের ছবির মত একটা পেইজ আপনারা সবাই দেখতে পাবেন। চলুন এই ছবিটা থেকেই শিখে নিই কিছু জিনিস-

১) Add Media বাটন। পোস্টের কোথাও কোনও ছবি যুক্ত করার প্রয়োজন পরলে এই টুল টি ব্যবহার করুন। এখানে ক্লিক করলে আপনি নতুন পেইজ থেকে চাইলে আগে আপলোডকৃত ইমেজ পোস্টে সেট করতে পারবেন কিংবা আপনার মেমোরি থেকে ফাইল আপ করে ব্যবহার করতে পারবেন। আবার Insert From URL অপশনে ক্লিক করে কোনও ইমেজের লিংক paste করেও ইমেজ আপলোড করে সেট করতে পারবেন। আপলোডকৃত ইমেজ সিলেক্ট করার পরে Insert into post বাটনে ক্লিক করলেই ইমেজটি পোস্টে চলে আসবে। পোস্টের প্রথমে/শেষে/মাঝে যেখানেই ছবি যুক্ত করতে চান সেখানে ক্লিক করে Add Media বাটন থেকে ছবি যুক্ত করতে পারবেন।

২) B লেখা এই টুলটি ব্যবহার করা হয় লেখা BOLD করার জন্য। যে অংশটিকে বোল্ড করতে চান মার্ক করে B বাটনে ক্লিক করলেই বোল্ড হয়ে যাবে।

৩) I লেখা এই টুলটি ব্যবহার করা হয় লেখাকে ইটালিক বা হালকা কাত করে লেখার জন্য। যে অংশকে ইটালিক করতে চান সেটা মার্ক করে এখানে ক্লিক করলেই ইটালিক হয়ে যাবে।

৪) এই অপশনটি ব্যবহার হয় কোনও টেক্সট হাইপারলিংক করা থাকলে সেখান থেকে লিংক সরানোর জন্য। হাইপারলিংক করা শব্দে সিলেক্ট করে এখানে ক্লিক করলেই লেখা থেকে লিংক সরে যাবে।

৫) এটি ব্যবহার করা হয় হাইপারলিংক তৈরি করার জন্য। যে লেখাতে লিংক অ্যাড করতে চান সেটা মার্ক করে এই বাটনে ক্লিক করুন। দেখবেন আলাদা বক্সে লিংক অ্যাড করতে পারছেন। সেখানে লিংক অ্যাড করুন। এবার Open link in a new window/tab অপশনে টিক দিয়ে Add link বাটনে ক্লিক করলেই হাইপারলিংক তৈরি হয়ে যাবে।

৬) এই অপশন ব্যবহৃত হয় টেক্সট রঙ করার জন্য। রঙ করার জন্য টেক্সট মার্ক করুন। এবার দেখানো বাটনে ক্লিক করুন। দেখবেন কালার সিলেক্ট করতে পারছেন।

৭) এটি জাস্টিফাই বাটন। পোস্ট লেখার পরে প্যারা গুলি একটু এদিক সেদিকে চলে যাওয়াটাই স্বাভাবিক। এই বাটনে ক্লিক করলে এটি আপনার প্যারাগুলিকে একটু সুন্দর করে সাজিয়ে দেবে।

 

৮) এটি Underline বাটন। টেক্সট মার্ক করে এখানে ক্লিক করলে মার্ক করা অংশে আন্ডারলাইন হয়ে যাবে।

৯) save draft বাটন ব্যবহার করা হয় যখন আপনি একবারে পুরো পোস্ট লিখতে পারছেন না তখন। হয়ত অর্ধেক লিখে কোনও কাজে চলে গেলেন, এখানে ক্লিক করলে অর্ধেক লেখাটা পাবলিশ না করে সেভ হয়ে যাবে। পরে এসে বাকী অংশ লিখতে পারবেন। তবে এই ফিচারটি অটো অন করা আছে। তাই আপনার লেখা এমনিতেই একটু পরপর অটো সেভ হবে। ড্রাফট সেভ না করলেও লেখা হারাবার ভয় নেই।

১০) Preview বাটন। পোস্ট লেখার সময় এখানে ক্লিক করলে দেখা যাবে যে পোস্ট পাবলিশ হবার পরে পোস্ট টি কেমন দেখাবে।

আশা করি আপনারা খুব সহজেই টুলগুলো ব্যবহার করে পোস্ট লিখতে পারবেন। যদি আরও কোনও প্রশ্ন থাকে বা কোনও উল্লেখিত কোনও টুলের কাজ বুঝতে না পারেন তাহলে নিচের কমেন্ট বক্সে প্রশ্ন করুন। যথাসাধ্য চেষ্টা করা হবে প্রশ্নের উত্তর দেবার জন্য। টেকবার্কস এর সাথেই থাকুন। ধন্যবাদ।

(8)

ফেসবুক থেকে কমেন্ট করুন

আরও কিছু বার্কস

>> বার্কটি শেয়ার করুন:

One Comment

  1. লেখার সাইজ পরিবর্তন করবো কি দিয়ে??

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*