মিসির আলী সিরিজ মহান বাংলাদেশী লেখক হুমায়ূন আহমেদ (১৩ নভেম্বর ১৯৪৮ – ১৯ জুলাই ২০১২। হুমায়ূন আহমেদের মত বাংলাদেশী লেখক, চিত্রনাট্যকার ও চলচ্চিত্র নির্মাতা আর নেই। তিনি ২০০ টিরও বেশি বই লিখেছিলেন।

 

“হিমু” জনপ্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদের দ্বারা নির্মিত একটি কাল্পনিক চরিত্র। হিমু একটি ভবঘুরের মত জীবনযাপন করে। তার চাকরি নেই এবং তাই আয়ের কোন উৎস নেই। সে একটি কঠোর পরিশ্রমী বাক্তির চেয়ে ভিক্ষুকের জীবন পছন্দ করেন। হিমু অব্যাহতভাবে ভ্রমণ করে – কখনও কোনও ধরনের পরিবহন ব্যবহার করে না। সে মানুষকে ভবিষ্যদ্বাণীপূর্ণ মন্তব্য আর অদ্ভুত কর্মকাণ্ড দেখাতে পছন্দ করে। অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির মধ্যে পড়ে গেলেও সে বেঁচে থাকে।

 

তাকে মানব প্রকৃতির অন্ধকার দিকটি বুঝতে চেয়েছিলেন। তার পিতা সম্ভবত তাকে অতিপ্রাকৃতিক ক্ষমতাবান একটি মহান মানুষ করতে চেয়েছিলেন। পরে হিমু যখন বড় হয়েছিলেন, তখন তিনি ভাবলেন যে তার পিতা একজন মনোবৈজ্ঞানিক ছিলেন না কিন্তু হিমুকে “মহান দার্শনিক” হিসাবে গড়ে তোলার চেষ্টা করেছিলেন। হিমু প্রায়ই মনে করেন যে তার পিতার সব চেষ্টা ব্যর্থ।

 

আজ আমি আপনাদের দিব হুমায়ূন আহমেদ স্যারের এই হিমুকে নিয়ে লেখা সব কয়টি বই। অনেক সময় আমরা বুঝতে পারিনা কোন বইটা হিমু চরিত্র নিয়ে লেখা আর কোন বইটা মিসির আলী চরিত্র নিয়ে লেখা। আপনাকে খুজে বের করতে হবেনা, আমি আপনাদের জন্য খুজে দিচ্ছি। সবগুলো বই এক সাথে পি.ডি.এফ আকারে পাবেন এখানে ফ্রি ফ্রি ফ্রি।

…ময়ূরাক্ষী…

…দরজার ওপাশে…

…হিমু…

…পারাপার…

…এবং হিমু

…হিমুর হাতে কয়েকটি নীল পদ্ম…

…হিমুর দ্বিতীয় প্রহর…

…হিমুর রূপালী রাত…

…একজন হিমু কয়েকটি ঝিঝি পোকা…

…তোমাদের এই নগরে…

…চলে যায় বসন্তের দিন…

…সে আসে ধীরে ধীরে…

…হিমু মামা…

…আঙুল কাটা জগলু…

…হলুদ হিমু কালো RAB…

…আজ হিমুর বিয়ে…

…হিমু রিমান্ডে…

…হিমুর একান্ত সাক্ষাৎকার…

…ময়ূরাক্ষীর তিরে…

…হিমুর বাবার কথামালা…

…হিমুর নীল জোস্না…

…হিমুর আছে জল…

…হিমু এবং একটি রাশিয়ান পরী…

…হিমু এবং হার্ভার্ড পিএইচডি বল্টু ভাই…

…হিমুর মধ্য দুপুর…

 

আপনি ডাউনলোড করে মোবাইলে বা পি.সি তে নিতে পারেন। আমি মোবাইলে ডাউনলোড করে পড়ি।

 

যেভাবে ডাউনলোড করবেনঃ

প্রথমে ২০ সেকেন্ড অপেক্ষা করে টিক তুলে দিন তারপর Download ক্লিক করুন।

https://www.bestchange.com/?p=94102

তারপর Download ক্লিক করুন।

https://www.bestchange.com/?p=94102

ব্যাস।

 

ধন্যবাদ।

(28)

ফেসবুক থেকে কমেন্ট করুন

আরও কিছু বার্কস

>> বার্কটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*