গুগল প্লেস্টোরের সেটিং অপশনে গিয়ে দেখে নিতে পারেন আপনার এন্ড্রয়েড ডিভাইসটি গুগল সার্টিফায়েড কি না। সেটিং-এর একেবারে নিচে ডিভাইস সার্টিফিকেশন (Device Certification) নামে একটি মেন্যু দেখতে পাবেন, যেখানে আপনার ডিভাইসের সার্টিফিকেশন স্ট্যাটাস দেওয়া থাকবে। যদি আপনার স্মার্টফোনটি গুগল দ্বারা সার্টিফায়েড হয় তবে এখানে Certified কথাটি লেখা দেখতে পাবেন, না হলে লেখা থাকবে Uncertified।

ডিভাইস সার্টিফিকেশন (Device Certification) কি?
এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমটি যেহেতু ওপেন সোর্স সফটওয়ার সেহেতু যে কোনো স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক এন্ড্রয়েড সোর্সকোড নিয়ে তার মতো করে এন্ড্রয়েড হ্যান্ডসেট তৈরি করতে পারে। সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও বেশ কয়েকটি এন্ড্রয়েড হ্যান্ডসেট প্রস্তুতকারক কোম্পানি গড়ে উঠেছে এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের এই সহজলভ্যতার কারণে। যেহেতু প্রত্যেকটি কোম্পানি তার মতো করে যন্ত্রাংশ এবং কনফিগারেশন নিয়ে হ্যান্ডসেট বানাচ্ছে, সেহেতু এন্ড্রয়েড ইকোসিস্টেমে একধরনের শৃঙ্খলার অভাব দেখা দেয়। এ কারণে এন্ড্রয়েড হ্যান্ডসেটগুলো নানা রকম অভিযোগের মুখে পড়ে যেমন- অনেক সময় অ্যাপ্লিকেশনগুলো ঠিকমতো চলে না, ধীরগতিতে সাড়া দেয়, হ্যাং হয়ে যাওয়া, ব্যাটারি দ্রুত শেষ হয়ে যাওয়া, ভাইরাসের আক্রমণ ইত্যাদি।

এ কারণেই গুগল এন্ড্রয়েড ইকোসিস্টেমে শৃঙ্খলা তৈরি করা এবং নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করার জন্য ডিভাইস সার্টিফিকেশন ব্যবস্থাটি সামনে নিয়ে আসে। এর মাধ্যমে প্রতিটি হ্যান্ডসেটকে একটি কম্পেটিবিলিটি টেস্ট বা সামঞ্জ্যতা পরীক্ষায় পাস করতে হয়। এই পরীক্ষায় পাস করা মানে হচ্ছে হ্যান্ডসেটটি গুগল মোবাইল সার্ভিস (জিএমএস) Google Mobile Service (GMS)  ব্যবহারের জন্য সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত। গুগল প্লেস্টোর সেবা এবং গুগলের অন্যান্য প্রধান এন্ড্রয়েড অ্যাপ যেমন জিমেইল, ম্যাপস, ফটোজ, ক্রোম, ইউটিউব, ড্রাইভকে একসঙ্গে গুগল মোবাইল সার্ভিস (জিএমএস) বলে থাকে।

আপনার সেটটি সার্টিফায়েড না হলে?
তার মানে এই নয় যে আপনার সেটটি নকল। এর মানে হতে পারে গুগলের ডিভাইস সার্টিফিকেশন পরীক্ষার জন্য আপনার কোম্পানি চুক্তিবদ্ধ নয়। অথবা চুক্তিবদ্ধ কিন্তু এখনো পর্যন্ত কম্পেটিবিলিটি টেস্ট বা সামঞ্জস্যতা পরীক্ষায় পাসের সার্টিফিকেশন পাওয়া যায়নি। হতাশ হওয়ার কিছু নেই; বাজারে বিদ্যমান বেশ কিছু নামিদামি ব্র্যান্ডের কম মূল্যের সেট আনসার্টিফায়েড (Uncertified) অবস্থায় পাওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, গুগল সার্টিফায়েড ম্যানুফ্যাকচারার লিস্টে বাংলাদেশের ওয়ালটন এবং সিম্ফোনির নাম দেখা যাচ্ছে। তার মানে কোম্পানি দুটি গুগল পার্টনার কোম্পানি হিসেবে এন্ড্রয়েড অপারেটিং সফটওয়ার তাদের হ্যান্ডসেটে ব্যবহার করছে। নিচের লিংকে গিয়ে খুঁজে নিন আপনার হ্যান্ডসেট প্রস্তুতকারকের নাম :

https://www.android.com/gms/partners/ 

এখনই দেখে নিন আপনার সেটটি গুগল সার্টিফায়েড কি না!

(46)

ফেসবুক থেকে কমেন্ট করুন
>> বার্কটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*